হালুয়াঘাটে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১ জনের মৃত্যু

হালুয়াঘাটে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১ জনের মৃত্যু

0 973

মোঃ আব্দুল হক লিটনঃ ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় এক জনের মৃত্যু হয়েছে। জানা যায় গত ৩ আগস্ট উপজেলার আমতৈল ইউনিয়নের গাতী গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের পুত্র রুহুল আমীন (৪৫) সকাল ১০ টায় নাগলা বাজারের উদ্যেশ্যে রওয়ানা হন। স্বদেশী এবং আমতৈল ইউনিয়নের মাঝখানে আসা মাত্রই ঘাষীগাঁও গ্রামের আব্দুল কাদিরের পুত্র মোঃ রফিকের ভাড়াটিয়া মটরসাইকেল উল্টোদিক থেকে দ্রুতগতিতে এসে রুহুল আমীনকে সজোরে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলে তার মুত্যু হয়। এমন ঘটনায় এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। জনতা নাগলা-শাকুয়াই রাস্তার মাঝখানে গাছ ফেলে প্রায় ২ ঘন্টা অবরোদ্ধ করে রাখে। পরে স্বদেশী ইউপি চেয়ারম্যান খোকন তালুকদার ও এস আই মজিবুর রহমানের সুপারিশে এলাকার লোকজন তাদের দাবী প্রত্যাহার করে নিয়ে গাড়ি চলাচলের সুবিধা করে দেন। পারিবারিক সুত্রে জানা যায় মৃত রুহুল আমীনের পিতা মোঃ আব্দুর রাজ্জাক দীর্ঘ ৭ বছর যাবৎ অসুস্থ অবস্থায় বিছানায় পড়ে আছেন। এক মাত্র ছেলে রুহুল আমীন তার বৃদ্ধ পিতার চিকিৎসা সহ তার সংসারের এক মাত্র উপার্জনকারী। মৃত রুহুল আমীনের ১ স্ত্রী, ৩ মেয়ে ১ ছেলে, বড় মেয়ে তার্জিনা, আইরীন, নৈরীন ও ৪ বছরের ছোট ছেলে রফিকের কান্নায় আকাশ বাতাস ভারী হয়ে যাচ্ছে। এমন মৃত্যু মেনে নিতে পারছে তার সন্তানরা। ৩য় মেয়ে নৈরীন বার বার কান্নাজরিত কন্ঠে বলছে আমার আব্বুকে এনে দাও, আমার আব্বু মরতে পারেনা, আমার দাদা অসুস্থ কে আমার দাদাকে ডাক্তার দেখাবে, আমাদেরকে কে দেখবে, আমরা নিরুপায় আমাদের আর কিছু রইলনা, এমনি ভাবে আর্তনাদ করছে। অসুস্থ পিতা আব্দুর রাজ্জাকের সাথে কথা বললে তিনি জানান আমার এক মাত্র প্রদীপ নিবে গেল, আমি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ অবস্থায় বিছানায় ঘরে পড়ে আছি আমার মরন কেন হলনা আমার পুত্রের এমন মৃত্যু আমি কোন ভাবেই মেনে নিতে পারছি না। রহুল আমীনের মৃত্যুর সংবাদ শুনে এক নজর দেখার জন্য তার বাড়িতে হাজারও মানুষের ভীড় জমায়। এমন হৃদয় বিদারক দৃশ্য দেখে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেনি কেউ।

কোন মন্তব্য নেই

Leave a Reply